চট্টগ্রাম   সোমবার, ১৭ মে ২০২১  

শিরোনাম

রোহিঙ্গা ডাক্তারদের অপচিকিৎসায় জর্জরিত রোহিঙ্গারা

নিজস্ব প্রতিবেদক    |    ০৬:৩৫ পিএম, ২০২১-০১-১৯

রোহিঙ্গা ডাক্তারদের অপচিকিৎসায় জর্জরিত রোহিঙ্গারা

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা তাদের গোষ্ঠীয় রোহিঙ্গা ডাক্তারদের কাছ থেকে ভুল চিকিৎসা নিচ্ছে। আশ্রয় শিবিরে সরকার ও বিভিন্ন এনজিও সংস্থা পরিচালিত উন্নত চিকিৎসা সেবা প্রতিষ্ঠান ও হাসপাতাল বিদ্যমান থাকা সত্ত্বেও রোহিঙ্গারা অনভিজ্ঞ আনাড়ি রোহিঙ্গা চিকিৎসকদের দ্বারস্থ হচ্ছে প্রতিনিয়ত। সূত্র জানায়, উখিয়া টেকনাফের প্রতিটি আশ্রয় ক্যাম্পে সার্টিফিকেটধারী শত শত ডাক্তার থাকা সত্ত্বেও রোহিঙ্গা পল্লী ডাক্তারের কাছে যেতে বেশি অভ্যস্ত রোহিঙ্গারা। তারা সরকারী-বেসরকারী চিকিৎসা সেবা না নিয়ে অনভিজ্ঞ ওইসব রোহিঙ্গা ডাক্তারের শরণাপন্ন হয়ে ধুঁকে ধুঁকে মরছে। মিয়ানমারে স্কুলে কয়েক ক্লাস পাস করে বাংলাদেশে এসে ক্যাম্পে ডাক্তার সেজেছে এমন রোহিঙ্গা ভুয়া ডাক্তারের সংখ্যা অনেক। সরকারি ও বিভিন্ন এনজিও সংস্থায় নিয়োজিত অভিজ্ঞ ডাক্তারদের কাছে না গিয়ে রোহিঙ্গা নারী-শিশুরা ওইসব ভুঁইফোড় ডাক্তারের জন্য ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষায় থাকে বলে জানা গেছে। রাখাইন রাজ্যে বসবাসকালীন রোহিঙ্গারা দেশটির সরকারী হাসপাতালে ভর্তি বা চিকিৎসা সেবা নেয়া থেকে বিরত থাকত। যদিও বাধ্য হয়ে ভর্তি হলেও রোহিঙ্গা পল্লী চিকিৎসককে সহযোগী হিসেবে পাশে রাখত বলে জানা গেছে। রাখাইন ডাক্তারগণ সহসা মরে যাবার ওষুধ খাইয়ে দিয়ে রোহিঙ্গা জাতি কমিয়ে আনতে পারে, এক সময় রোহিঙ্গা নেতারা রাখাইন রাজ্যে এমন অপবাদ ছড়িয়েছিল। তখন থেকে রোহিঙ্গা নারী পুরুষ তাদের স্বজাতি ডাক্তারদের ওপর আস্থা বাড়িয়ে দিয়েছে। বাংলাদেশে উন্নত চিকিৎসা সেবা পাওয়া সত্ত্বেও রোহিঙ্গারা আশ্রয় ক্যাম্পে তাদের পল্লী ডাক্তারের অপেক্ষায় বসে থাকে। উখিয়া-টেকনাফে অবস্থিত আশ্রয় শিবিরগুলোতে ক্যাম্প প্রশাসনের কতিপয় কর্মকর্তাকে ম্যানেজ করে ক্যাম্পে অবৈধ ওষুধের দোকান ও এক শ্রেণীর রোহিঙ্গা রাখাইন স্কুলে পড়ালেখা করে বাংলাদেশে পালিয়ে এসে নিজেরা ডাক্তার সেজে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে। এসব ওষুধের দোকানগুলোতে ডাক্তারি পেশা চালিয়ে যাচ্ছে মগভাষায় শিক্ষিত এক শ্রেণীর রোহিঙ্গা। উখিয়া-টেকনাফের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গড়ে ওঠা ওইসব ফার্মেসির আড়ালে ইয়াবা কারবারও চলছে বলে তথ্য মিলছে। উখিয়া জামতলি রোহিঙ্গা ক্যাম্প বাজার কেন্দ্রিক ওষুধের দোকান খুলে রোগী দেখছে ভুঁয়া চিকিৎসক রোহিঙ্গা। অনেকেই ক্যম্পের ভিতরে তাদের কক্ষে অবৈধভাবে ডাক্তারি ও ওষুধ বিক্রি করলেও ক্যাম্প প্রশাসন এ পর্যন্তও অভিযান পরিচালনা করেনি। এ সুযোগে অপচিকিৎসা ও ইয়াবা কারবার চালিয়ে যাচ্ছে রোহিঙ্গা ডাক্তাররা। বিভিন্ন এলাকার ফার্মেসির ড্রাগ লাইসেন্সের ফটোকপি দিয়ে অবৈধভাবে দোকান করে নগদ টাকা কামাই করছে রোহিঙ্গারা। থাইংখালী, বালুখালী, পালংখালী, ময়নারঘোনা, কুতুপালং, মধুরছড়া, জামতলি রোহিঙ্গা বাজারের অলিতে গলিতে অবৈধভাবে ওষুধের ফার্মেসি খুলে রোহিঙ্গারা নিজেদের ডাক্তার সেজে চিকিৎসার নামে চালিয়ে যাচ্ছে রমরমা বাণিজ্য। স্থানীয় জামতলির ডাক্তার সমিতির সাধারণ সম্পাদক ডাক্তার মোঃ ইউছুফ বলেন, রোহিঙ্গা আসার কারণে আমরা ক্ষেত-খামার, জমিজমাসহ সবকিছু হারিয়েছি। বর্তমানে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম দ্বিগুণ। এখন স্থানীয়দের ব্যবসা কমে গেছে। রোহিঙ্গাদের দোকানে ব্যবসা জমজমাট। রোহিঙ্গারা রোহিঙ্গার দোকান ব্যতীত অন্য কোন দোকান থেকে ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস ক্রয় করে না।   স্থানীয় দালালের মাধ্যমে রোহিঙ্গা ডাক্তাররা কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে নামে বেনামে ট্রেড লাইসেন্স ও নাগরিক সনদ নিয়ে এবং অন্যজনের নামে থাকা প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত চিকিৎসকের ডিপ্লোমা সনদ এলএমএএফ, ডিএমএডি, এমএফ, আরএমপি সনদ এবং ভুঁয়া সনদ বানিয়ে এই মহামানবসেবামূলক পেশাকে কলঙ্কিত করছে। রোহিঙ্গা ক্যাম্প কেন্দ্রিক যেসব অশিক্ষিত ভুয়া রোহিঙ্গা ডাক্তার ও আনাড়ি চিকিৎসক যত্রতত্র দোকান খুলে চিকিৎসার নামে ভুল চিকিৎসা করে মানুষের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে। অজ্ঞ ডাক্তাররা চিকিৎসার নামে রোহিঙ্গাদের হাতে তুলে দিচ্ছে মেয়াদোত্তীর্ণ ও নিষিদ্ধ ঘোষিত নিম্নমানের ইত্যাদি ওষুধ। ৩২টি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কথিত ভূঁইফোড় ডাক্তারসহ অন্তত ১০ হাজারের অধিক ওষুধের দোকান রয়েছে রোহিঙ্গাদের। বিভিন্ন কোম্পানি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ওষুধ সরবরাহ দেয়ার জন্য অসংখ্য প্রতিনিধি নিয়োজিত রেখেছে। তারা বাকিতে ওষুধ দিয়ে যাচ্ছে রোহিঙ্গাদের দোকানে। সপ্তাহ পর পর এসে টাকা আদায় করছে। এ ব্যাপারে উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নিজাম উদ্দিন আহমদ বলেন, কুতুপালং বাজারসহ ক্যাম্পের ভিতরে বাইরে ওষুধের দোকান খুলে যারা নিজেদের ডাক্তার দাবি করে ভুঁয়া কাগজপত্র নিয়ে ওষুধ বিক্রি করছে, তাদের ফার্মেসি এবং কথিত ডাক্তারদের বিরুদ্ধে ইতোপূর্বে একাধিক বার মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে অর্থ ও জেল উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করেছি। আর ফার্মেসি খুলে অনেকেই একটা ইনজেকশনের সিরিজ ২-৩ বার ব্যবহার করছে এমন অভিযোগও আমার কাছে আছে।

রিটেলেড নিউজ

ককসবাজারের সাংবাদিক নেতা মুজিবুল ইসলামের ঈদ শুভেচ্ছা

ককসবাজারের সাংবাদিক নেতা মুজিবুল ইসলামের ঈদ শুভেচ্ছা

আমাদের ডেস্ক : : কক্সবাজারের সাংবাদিক নেতা , লাভ বাংলাদেশ কক্সবাজার জেলা কমিটির সম্মানিত উপদেষ্টা সকলের প্রিয় মু...বিস্তারিত


পি.এম.খালী ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী নূরুল আজিমের ঈদ শুভেচ্ছা

পি.এম.খালী ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী নূরুল আজিমের ঈদ শুভেচ্ছা

আমাদের ডেস্ক : : কক্সবাজার সদরের পি.এম.খালী ইউনিয়নের জনপ্রিয় সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী সাবেক ছাত্রনেতা নু...বিস্তারিত


সংবাদকর্মী জহিরের ঈদ শুভেচ্ছা

সংবাদকর্মী জহিরের ঈদ শুভেচ্ছা

আমাদের ডেস্ক : : দৈনিক আমাদের চট্টগ্রাম পত্রিকার কক্সবাজার প্রতিনিধি ও লাভ বাংলাদেশ কক্সবাজার জেলা কমিটির সাধার...বিস্তারিত


বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হাসান পারভেজের ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা

বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হাসান পারভেজের ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা

আমাদের ডেস্ক : : কক্সবাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী,সমাজসেবক ও কক্সবাজারের ব্লাড ডোনার্স সোসাইটির সহ কার্যকরী সদস্য...বিস্তারিত


সাংবাদিক আরফান উদ্দিনের ঈদ শুভেচ্ছা

সাংবাদিক আরফান উদ্দিনের ঈদ শুভেচ্ছা

আমাদের ডেস্ক : : দৈনিক আমাদের বাংলা পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার ও লাভ বাংলাদেশ চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি এবং দৈনিক আমা...বিস্তারিত


কক্সবাজার মেগামার্টের স্বত্বাধিকারী তরুণ সফল ব্যবসায়ী জহিরের ঈদ শুভেচ্ছা

কক্সবাজার মেগামার্টের স্বত্বাধিকারী তরুণ সফল ব্যবসায়ী জহিরের ঈদ শুভেচ্ছা

আমাদের ডেস্ক : : কক্সবাজারের স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান মেগা মার্টের স্বত্বাধিকারী তরুণ সফল ব্যবসায়ী  জহির উদ্দিন...বিস্তারিত



সর্বপঠিত খবর

পেকুয়ার টইটং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্রপ্রার্থীর ঘোষণা দিলেন মোঃ শহীদুল্লাহ

পেকুয়ার টইটং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্রপ্রার্থীর ঘোষণা দিলেন মোঃ শহীদুল্লাহ

নিজস্ব প্রতিবেদক : কক্সবাজার পেকুয়া উপজেলার টইটং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেব...বিস্তারিত


প্রবল ভাঙ্গনের মুখে সেন্টমার্টিন

প্রবল ভাঙ্গনের মুখে সেন্টমার্টিন

আমাদের ডেস্ক : : বর্ষায় অতি বৃষ্টি, মৌসুমি বায়ুর তীব্র প্রভাব ও জোয়ারের পানি অস্বাভাবিকভাবে বাড়ার ফলে প্রবলভাবে ভ...বিস্তারিত



সর্বশেষ খবর